June 14, 2024

ভারতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ইতিহাস

Indian History

ভারতীয় ইতিহাস

ভারতবর্ষ আমাদের এমন একটি দেশ যা পৃথিবীর প্রাচীনতম সভ্যতার মধ্যে একটি। এই ভারতবর্ষের ৫০০০ বছরের পুরনো ইতিহাস আমাদের কাছে যতটা গৌরবময় ততটাই আশ্চর্যজনক। ভারতীয় ইতিহাসের বই ঘাটলে এরকম আশ্চর্যকর ইতিহাসের ব্যাপারে হয়তো জানতে পারবে কিন্তু সমস্ত আশ্চর্যকর ইতিহাস এক জায়গায় কখনোই খুঁজে পাবেনা আর এমনিতেও ভারতীয় ইতিহাসের বই বা যেকোনো ইতিহাসের বই পড়তে আমাদের খুব একটা ভাল লাগে না। তাই তোমাদের জন্য ভারতের কিছু আশ্চর্যকর ইতিহাস এই পোস্টে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি ।

 odrageneralknowledgeonindianhistory.blogspot.com 5000 Years of Indian History

প্রাচীন ভারতের গৌরবময় ইতিহাস

১।প্রায় 4.500 বছর পুরানো ভারতবর্ষের সংস্কৃতি হল বিশ্বের প্রাচীনতম সংস্কৃতিগুলির মধ্যে একটি অন্যতম।

Brihadaranyaka Upanishad verses 1.3.1 to 1.3.4,

২। যারা অংক করতে ভালোবাসো বা অংক বিষয়টিকে ভালোবাসো তারা হয়তো শুনলে অবাক হবে যে এই নাম্বার সিস্টেমের জন্ম হয়েছিল আমাদের দেশ ভারতবর্ষ।

৩। এছাড়া যে সংখ্যাটি ছাড়া নাম্বার সিস্টেম অচল হয়ে যায় সেই শূন্য সংখ্যাটির আবিষ্কার হয়েছে ভারতবর্ষে আর এই সংখ্যাটি আবিষ্কার করেছিলেন জ্যোতির্বিজ্ঞানী  আর্যভট্ট, এনার নাম তোমরা অবশ্যই জানো। ১৯৭৫ সালে যখন ভারতের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ লঞ্চ করা হয় তখন তার নামকরণ করা হয় মহান জ্যোতির্বিজ্ঞানী আর্যভট্টের নামে।

৪। গণিতের জগতে ভারতের অবদান অতুলনীয়। গণিতের নানা শাখা যথা অ্যালজেবরা, ত্রিকোণমিতি ও ক্যালকুলাসের জন্ম হয়েছিল আমাদের দেশে এবং দশমিকের আবিষ্কার হয়েছিল আমাদের এই দেশ ভারতবর্ষে।

৫।১০০ খৃষ্টপূর্বে ভারতবর্ষে ডেসিমেল পদ্ধটিটি আবিষ্কার হয়েছিল।

৬। পায়ের (π) সাথে আমরা সবাই হয়তো খুবই পরিচিত, এই পায়ের (π) আবিষ্কার হয়েছিল আমাদের দেশ ভারতবর্ষে । ইউরোপীয় বণিকদের অনেক আগেই ষষ্ঠ শতাব্দীতে এক ভারতীয় গণিতবিদ বৌদ্ধায়ন যিনি পাই(π) এর মান  সঠিকভাবে বর্ণনা করেছিলেন ।

৭। পৃথিবী সূর্যের চারিদিকে ঘোরে এটা আমরা সবাই জানি কিন্তু পৃথিবীকে সূর্যের চারদিকে ঘুরতে কত দিন সময় লাগে তার প্রথম অনুমান করেছিলেন প্রাচীন ভারতের মহান জ্যোতির্বিজ্ঞানী ভাস্করাচার্য।

৮। চিকিৎসাশাস্ত্রের সবথেকে পুরনো পদ্ধতি হলো আয়ুর্বেদ যার এর জন্ম হয়েছিল আমাদের দেশে । এই আয়ুর্বেদ চিকিৎসা ক্ষেত্রে চড়কের অবদান ছিল গুরুত্বপূর্ণ যাকে বলা হতো প্রাচীন ভারতের “দা ফাদার অফ মেডিসিন”

charak ayurveda

৯। চিকিৎসাশাস্ত্রের সবচেয়ে বড় অংশ হলো সার্জারি আর এটিরও জন্ম হয়েছিল এই দেশেই। সুশ্রুত কে বলা হয় সার্জারির জনক তিনি একজন ভারতীয় ঋষি ছিলেন তিনি সুশ্রুতসংহিতা লিখেছিলেন। সুশ্রুত সংহিতা প্রাচীন ভারতীয় ওষুধের একটি বিশাল গ্রন্থ এই বইটিতে তিনি ৩০০ টিরও বেশি শল্যচিকিৎসা এবং ১২০ টির বেশি অস্ত্রোপচারের বর্ণনা দিয়েছেন।

Sushruta Samhita

১০। বিশ্বের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল আমাদের দেশ ভারতবর্ষে ৭০০ খৃষ্টপূর্বে নাম তক্ষশীলা বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্বের সমস্ত জায়গা থেকে প্রায় ১০ হাজারের ওপর স্টুডেন্ট তক্ষশীলা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার জন্য আসতো।

আরও পড়ুন –  কলকাতার কিছু বিখ্যাত জায়গার নামকরণের ইতিহাস

১১। ইংরেজি ভাষার প্রতি ভারতীয়দের এত টান সেই ইংরেজি ভাষার অনেক শব্দ  ভারতীয় সংস্কৃত ভাষা থেকে এসেছে। শুধু ইংরেজি ভাষায় নয় অনেক ইউরোপিয়ান ভাষার উৎপত্তি হয়েছে ভারতের সংস্কৃত ভাষা থেকে।আধুনিক প্রযুক্তির কম্পিউটার সফটওয়্যারেও খুব স্বচ্ছন্দ সংস্কৃত শব্দ।

১২। ৫০০০ বছর আগে যখন বিশ্বের অন্যান্য সভ্যতা যখন জঙ্গলে বসবাস করত তখন ভারতে বড় বড় শহর তৈরি হয়েছিল এবং প্রাচীন ভারতে স্থাপিত হয়েছিল সিন্ধু সভ্যতা। ভারতের প্রাচীন সিন্ধু সভ্যতাটি প্রায় ৪০০০ বছরের বেশি পুরানো।হরপ্পা, মহেঞ্জোদারো কোথা তো  আপনারা সবাই শুনেছেন এই দুটি ছিল সিন্ধু সভ্যতার অংশ।

Indus Valley Civilisation

১৩। বিশ্বের দুটি প্রধান ধর্মের উৎপত্তি আমাদের দেশে, একটি হলো বৈদিক ধর্ম যা হিন্দু নামে পরিচিত আরেকটি হলো বৌদ্ধধর্ম।ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭৫ শতাংশ লোকই হিন্দু।পরের দিকে বৌদ্ধধর্ম বিভিন্ন দেশে যেমন মায়ানমার, শ্রীলংক্‌ তিব্বত, চায়ন্‌ জাপান, কোরিয়া এবং থাইল্যান্ড ছড়িয়ে পড়ে।

 এই কথাগুলো জানার পর সত্যিই আমরা ভারতীয় হিসেবে গর্ববোধ করি।

 

ভালো লাগলে পোস্টটি সকলের সাথে অবশ্যই শেয়ার করুন। আপনাদের মতামত নিচে কমেন্ট করে অবশ্যই জানান আমরা অপেক্ষায় আছি।

নিচের ভিডিওটি দেখুন

Facebook Comments Box
BengaliEnglishHindi