June 16, 2024

প্রতীক্ষার অবসান, শনিবারই থেকেই শিয়ালদহ স্টেশন থেকে ছুটবে মেট্রো

Sealdah metro station

ইস্ট-ওয়েস্ট প্রকল্পের অন্যতম বড় স্টেশন হতে চলেছে শিয়ালদহ। এই জন্য শিয়ালদহে থাকছে বিশেষ ধরনের প্ল্যাটফর্ম। বিপুল সংখ্যক যাত্রীর কথা মাথায় রেখেই ডবল ডিসচার্জ প্ল্যাটফর্ম করা হচ্ছে শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনে এখানে দুটি লাইনের জন্য থাকবে তিনটি প্ল্যাটফর্ম। ট্রেনের দুই পাশ দিয়েই যাত্রীরা প্লাটফর্মে সহজেই নামতে পারবেন। পাশাপাশি প্ল্যাটফর্ম দু’পাশেই স্ক্রিন ডোর ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

বর্তমানে ইস্ট-ওয়েস্টের সেক্টর ফাইভ থেকে ফুলবাগান স্টেশন পর্যন্ত চলছে মেট্রো। এবার ফুলবাগান থেকে শিয়ালদহ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার, পরিষেবা বাড়াতে তৎপর মেট্রো কর্তৃপক্ষ। এই জন্য শনিবার থেকে শুরু হতে চলেছে ফুলবাগান থেকে শিয়ালদহ পর্যন্ত ট্রায়াল রান।

 শিয়ালদহের মেট্রো স্টেশন হতে চলেছে সম্ভবত দেশের সবচেয়ে ব্যস্ততম স্টেশন।  রেল কর্তৃপক্ষের অনুমান অফিস টাইমে প্রতি ঘন্টায় ১৭ হাজার যাত্রী মেট্রো ধরার জন্য স্টেশনে ঢুকবেন এবং ২২ হাজার যাত্রী স্টেশন থেকে বেরোবেন।মেট্রো স্টেশন কাজ চলছে জর কদমে, তা প্রায় শেষের মুখে। 

শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনে কি কি থাকবে ?

মাটি থেকে ১৬.৫ মিটার নিচে অর্থাৎ ৫০ ফুটের বেশি গভীরে নির্মিত হয়েছে শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন । মোট দুটি স্তর রয়েছে স্টেশনে। উপরের স্তরে টিকিট সহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা থাকবে। আর নিচের স্তরে যাত্রীরা মেট্রোতে উঠবেন। মোট দুটি প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। মাটির নিচে শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনটি ২০৫ মিটার লম্বা, ৪৩ মিটার পরিসরের। এই প্ল্যাটফর্ম এর বিশেষত্ব হল দু’দিক দিয়ে মেট্রোতে ওঠা নামা করা যাবে। শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন দিয়ে ব্যস্ত সময়ে ঘণ্টায় প্রায় ৫০ হাজার যাত্রী যাতায়াত করবেন। তার জন্য দু’দিকেই বসানো হয়েছে সেফটি ডোর। প্লাটফর্মে ট্রেন ঢুকলে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থায় দু’দিকের সেফটি ডোর একসঙ্গে খুলে যাবে। মোট ৩টি প্ল্যাটফর্ম থাকছে।

Metro

যেহেতু বহু যাত্রী ওঠানামা করবেন তাই আইল্যান্ড প্ল্যাটফর্ম রাখা হয়েছে। আপ ও ডাউন লাইনের জন্য দু’টি প্ল্যাটফর্ম ছাড়াও মাঝে থাকছে বিশেষ ‘আইল্যান্ড’ প্ল্যাটফর্ম। এই স্টেশনে মেট্রোর দরজা খুলবে দু’দিকেই। ফলে আসা-যাওয়ার পথে যাত্রীরা ট্রেনে দ্রুত ওঠা-নামা করতে পারবেন। ইতিমধ্যেই বসানো হয়েছে প্ল্যাটফর্ম স্ক্রিন ডোর। ইতিমধ্যেই স্টেশন সাজানোর কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। থাকবে ৩০টি টিকিট কাউন্টার, ১৮টি এসক্যালেটর, ৫টি লিফট, ৯ টি সিঁড়ি। এই স্টেশন চালু হলে লোকাল ট্রেনে শিয়ালদহে নেমে বহু মানুষ মেট্রোয় চেপে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন।

ট্রায়াল রানের কথা ভেবে ইতিমধ্যেই শেষ করা হয়েছে পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেম ইনস্টলের কাজ। বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে থার্ড লাইনে।

সব ঠিকঠাক থাকলে  আসা করা যেতে পারে চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসেই শিয়ালদহ থেকে চালু হতে পারে মেট্রো।

হাওড়া মেট্রো স্টেশন

 

 

Facebook Comments Box
BengaliEnglishHindi